মৃতলোক

আরভান শান আরাফ

অবশেষে ফিরে এলাম মৃতদের নগরে,
যেখানে মৃতলোকের স্তূপ।

যেখানে সব দেহ পড়ে আছে চুপ
একদিন সব ছেড়ে ছিলাম

প্রাণলোকের ভয়ে ত্যাগ করেছিলাম স্বদেশ,স্বলোক আর স্বশ্বাস।

আজ সহস্রাব্দের পরে, মনে হলে
যেন সব পড়ে আছে মরে ছেড়ে বিশ্বাস।

ভরা পুর্ণিমায় একদা কেউ,
বলেছিল ছেড়ে যাবে তো মরে যাব।

সব ছেড়ে সেও চলে গেল,
আমি প্রাণের পর প্রাণ জ্বালিয়ে বেঁচে রব।

এই সেই গন্তব্য, যেখানে ফিরে আসা পাপ পূন্যের লোভে লোকে ঘাতক হয়,
আর মৃতরা, নিঃশ্বাসের সমাপ্তিতে বেঁচে রয়।

একদা ভরা বর্ষায় কেউ বলেছিল,
প্রাণের মাথা খাও, ছেড়ে দিও না।

অবশেষে সে ছেড়ে দিল,
আমি মৃতদের ভিড়ে তাকে পেলাম না।

পুন্যাত্মা,
আজ আমি বড়ই ক্লান্ত,
সব হারিয়ে নির্জন হয়ে আছি।

আপন পর কেউ নেই আজ এই নগরে,
আমি শ্রান্ত হয়ে পড়ে আছি।

সকালের রোদ্র কোন বার্তা আনেনি
বিকেল ও গেল অপেক্ষায়।

মৃত্যুর দূত,
তুমি খুব অলস কেন?
নিয়ে নাও না আমায়।

মৃতদের লোকে এই নগরে কেউ নেই,
যে হাতে হাত রেখে প্রাণের কথা বলে।

কেউ নেই যে একটু চলার লোভে
প্রাণের পথে আরেকটু চলে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.