‘কষ্ট’

মেঘ রাজ সাইমুন

কষ্ট আমার মনের কোণে এক চিলতে নীল!
স্বপ্ন ঘরের ইট-পাথরে নোনা ধরা নীড়,
কারোর যেন ভোর আকাশে দুঃখের শঙ্খচিল,
চোখের ভিতর আকাশ কোন শ্রাবণ মেঘের ভীড়।

শীতল বৃষ্টি ছোঁয়ায় একলা কাঁপা অধর,
কল্পনার অাঙিনায় শোক মাড়ানো স্বপন;
কোনো তরুনের আনমনে ছুটে চলা শহর,
শেষ বিকালে রক্তিম আভা মাখা একা চলন।

হয়তো কারোর প্রেম বিরহে নয়ন জ্বলে,
লাল কফি মগে অশ্রু ফোঁটা লবণাক্ত স্বাদ!
চাকরী চ্যুত কোন যুবকের বসা বটতলে,
ভরা পূর্ণিমা রাতে চায়ের কাপে পোড়ে চাঁদ।

অন্ন অভাবে রেলপথে দৌড়ানো এক শিশু,
স্টেশনে সাহেব দ্বারা পিড়িত কুলির ধিক্কার;
স্বার্থ-লোভে ছেড়ে যাওয়া মানবের সুখ পিপাসু,
জীবন দায়ে চার দেওয়ালে বেশ্যার চিৎকার।

ভালোবাসায় আঘাত পাওয়া শুকনো আশা,
কারোর বুকে ছুরির মত বিধে যাওয়া বিষ!
বেন্না পাতার চাউনি ঘেরা বিধবা বনিতার বাসা,
ঘুঙুর পায়ে নিত্যে নারী,বাজে পুরুষের শিস।

মন বাউলে কষ্ট কারোর অন্তরে অচিনপাখি,
সুখের পিছু তাড়া করা আত্ম ভোলা ছায়া!
কলা পাতায় হলুদ কোন আলপনা কাজল আঁখি,
কষ্ট যেন হৃদয়ে কম্পন,অনলে পোড়া কায়া। 

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.