প্রেমহীন প্রকৃতিময়

 পরিশ্রান্ত পথিক

আমি জানি তোমার দুচোখ,
আজ আর খুঁজেনা আমায়।

থাক একথা আর নাইবা বললাম,
জীবন ঋতুর আবর্তন চক্র খেলায়
ছিটকে পরেছি দুজন অজানায়।

শুষ্ক হৃদে মাঘ ফাল্গুনে শালপাতার নিচে
চাপা পড়ে আছে স্মৃতির পাতা,
সবুজের অরণ্য আজ ঝরাপাতা
কান্নায় মেতেছে গুল্মলতা।

হেমন্তের বৈকাল অবসরে সেই
ঘাস মাড়ানো পথচলা নেই,
সে বৈকাল অবসর আজ পরিশ্রান্ত,
যেন অন্ধকারাচ্ছন্ন গাছ তলায়।

অবকাশ তো ঠিকই আছে
নেই শুধু অনুভূতিরা,
মরে গেছে অগ্রাণের প্রারম্ভেই।

নীলচে আকাশ আজ শুন্য,
প্রগাঢ় গাঢ়তা নেই,
নিবিড় আসমানে চিল ডানা
মেলেনা এখন অবলীলায়।

তাল পুকুরের জল আজ কালচে,
সবুজ-বাদামির মেশামিশি নেই।

মাছরাঙাটা নুইয়ে পড়া বাঁশে,
বসেনা এখন অপেক্ষায়;
বিরক্ত যেন আজ না পাওয়াতে।

বাঁশবনের ডাহুকের মধ্যদুপুরের
ডাকাডাকি আজ কর্কশ লাগে,
চাতকের চাহনি নেই তোমার
নজর ফেরানো সেই দৃষ্টিতে।

পরগাছা লতাটি কেমন নির্জীব
পাতাগুলো নীলচে আম্রডালে,
ফড়িঙ গুলোর দুর্বার ছোটাছুটি
আজ স্তম্ভিত নীরবতার চাদরে।

কুহেলিকার মোড়ানো শীতলা বায়ু
যেন প্রেমহীন আজ প্রকৃতিময়।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.