সংযোগবিহীন সংবাদ

 পরিশ্রান্ত পথিক

অজানা এক দুঃসপ্নে কেটেছে রাত,
রক্তাভ চোখে প্রভাতফেরীর ডাক,
রাতের সপ্নঘোর কাটেনি তন্দ্রাচ্ছন্নয়,
ব্যস্ততার লাথিতে, ভুলেছি দেহ মন জ্বালা,
প্রাতরাশে হাত ফসকে পড়েছে থালা।
ভেবে নিয়েছি অসাবধানতায়।

ঘরের চৌকাঠ পেরোতেই; হোঁচট
এবার বক্ষমাঝে হৃদ কম্পন বেড়ছে
ক্রমশ একটু, না;আরো একটু প্রকট।
মন আমার কু-ডেকেছে তখনই,
দাঁড়কাকটা যখন আর্তনাদধ্বনি
গলা ফাটিয়ে চেঁচিয়েছে কড়াইডালে,
যেন দুঃসংবাদের বাহক সে।
আরে না,ওসব কুসংস্কার।

মন বসছেনা আজ ঘণ্টা পাঁচেক,
বুকের ধুকপুকানি বাড়ছে ধীরে
শ্রান্ত ফাল্গুনী দ্বিপ্রহরের অবসাদে।
ভর দুপুরের রোদ যেন আজ মায়াবি,
ঘোর সৃষ্টিতে ব্যস্ত, নাকি;
আমার আজ কিছু হয়েছে অজান্তে,
হয়ত অনিদ্রার বহিঃপ্রকাশ তন্দ্রাচ্ছন্নে।
না, হয়ত মনের ভ্রম।

সহসাই চকেছি, অপরিচিত নম্বর থেকে
কোন কলার টিউনের শব্দকম্পনে।
সম্বোধনপূর্বকেই বলে, সে যে মারা গেছে!
আমি নিথর, নিস্তব্ধ, নির্বাক, নির্বিকার
লুটিয়ে পরেছি আমি অবচেতনে,
ভেঙেছে মোবাইল খানি।
হুশ এলো,খানিকবাদে জল ছেটায়
কেউ সংবাদ দেয়নি আগে,
আমি পেয়েছি সংযোগবিহীন সংবাদ,
অনেক আগে,হয়ত শেষনিঃশ্বাসের আগে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.