রুপান্তরকামী নারী (দ্বিতীয় কবিতা)

কবিঃ মৃত্তিকা রাই

আমার মনে একটা রাজকুমারী খেলে।
হাওয়ার সাথে ভেসে ভেসে আমায় নিয়ে চলে।
এইদিকে না, সেই দিকে না, বারন করে থাকে।
বিসর্জনের তিক্ত সুরে হাতছানি দিয়ে ডাকে।

মাঝে মাঝে থমকে দাঁড়াই এই বুঝি পথ শেষ।
আচমকা এক তীর এসে করবে আমায় নিঃশ্বেস।
তবুও চলছি পা বাড়াচ্ছি মুক্ত পথিক বেশে।
জেৎ ধরেছি পণ করেছি, জীবন টা দেবো হেসে।

আমায় তুমি থামিয়ো না বন্ধু যেতে চাই বহুদূর।
কোকিল কন্ঠে শোনাবো গান গেয়ে যাবো সুমধুর।
লোকে কয় বেশ্যা বাইজি, ভাসছি কচুরিপানা।
বেশি দিন টিকবে না, বেটা শরীরে করিলে মেয়েলীপনা।

আমার শরীর মনের চাওয়া নিয়ে, কেন কাঁচকলা তুমি খাও?
তোমার মনের কামনা বাসনা, কেন আমায় চাপাতে চাও?
অনেক হয়েছে আর কথা না, যেতে হবে আজ বাড়ি।
আমার পথে দিয়ো না বাঁধা, আমি যে রুপান্তরকামী নারী।

০৩/১২/২০১৯ ইংরেজি।

লেখক মৃত্তিকা রাই সম্পর্কে কিছু কথা- উনি একজন ট্রান্সজেন্ডার, ট্রান্স উইমেন, রূপান্তরকামী নারী। উনি পুরুষ দেহে জন্মালেও, উনার মানসিক লিঙ্গ নারী।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.