পরজন্মেই ভালোবাসি

লেখকঃ- চক্রবাক 

এই বরফযুগে তুমি আমি অচেনা কেউ,

তুমি কাঁচ সমুদ্রে ভেসে আসা

নিশ্চুপ নিদারুণ মানুষ হলেও হতো,

আমি নতুন করে তোমার নাম

হিসেবের টালি খাতায় লিখতাম না,

অথবা

তোমার হলুদ কে ভালো না বাসলেও হতো,

আমি ঘুনে ধরা সমাজে, আবির মেশাতাম না।

তোমার আমার প্রেম টা, বৃষ্টি দিনের জলকেলির মতো,

ভিজতে বারণ, তবুও হাত ভিজিয়ে শান্তনা।

প্রেম? মিথ্যে কথার বিলাসিতা!

অথবা..লোভ দেখানো?

আমিও লুকিয়ে ভিখিরি হতাম, ভালোবেসে দেখতাম

বৃষ্টিদিনের দস্যি মেয়ে যেমন হয়!

কিন্তু তোমার আদর চেড়া বৃষ্টিফোঁটা

এই শহরের ডাকযোগে আর আসতো না!

সেদিন শেষ প্রশ্নে তোমার তোমার জিজ্ঞাসা,

“পরজন্মে বিশ্বাসি?”

“যদি হও, তবে এখানেই তন্দ্রাচ্ছন্ন থাকুক আমাদের প্রেম”

“পিষে যাক প্রতিদিনের দুরন্ত রিকশার তলে”

“মৃত হোক একশ হাজার টেলিফোনে”

“ফিকে হোক নাগরিক নিকটিনে”

“এখানেই ভালো থাকুক প্রাক্তন সময়ের বর্তমান ভালোবাসা”

সেদিন বৈষম্যের আদল বেয়ে জল ছিলো না একটুও,

আমি শান্ত মেয়ে ক্লান্ত নাগরিকে,

অধিকারের নিখোঁজ বিজ্ঞপ্তির আলোড়ন তুলেছি নিরবে নির্বিঘ্নে!

সমাজ আমাকে উত্তর দেয় নি সেদিনও।

আমাদের প্রেম পরে রইলো নির্বাক দৈনন্দে,

প্রিয়, তোমাকে নাহয় পরজন্মেই ভালোবাসি?

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.