গল্প-সল্প

নতুন বছর, নতুন দিন, নতুন রেজুলেশন। ২০১৮ কে বিদায় জানিয়ে পা রেখেছি ২০১৯। সাতরঙা গল্প মানেই নতুন কিছু, পাঠকের চাহিদা পূরনে নতুন বছরে সাতরঙা গল্পের নতুন আয়োজন গল্প-সল্প। আড্ডায় আড্ডায় ভরপুর সাতরঙা। যেখানে থাকছি আমি মেঘ আর আমার সাথে আড্ডা জমাতে থাকবে আপনাদেরই কেউ একজন পরিচিত প্রিয় মুখ৷

প্রথমবারের মত সাতরঙা গল্প নিয়ে এলো পাঠক আড্ডা, গল্প-সল্প।

তো বেশি বকবক না করে শুরু করে দেই আজকের আড্ডা, আজকের আড্ডাই আমি মেঘ স্বাতগ জানাচ্ছি সাতরঙা গল্পের সকল পাঠকদের৷ আর আমার সাথে আছে…হাহাহাহাহ পরিচয় নতুন করে করিয়ে দেয়ার মত কিছু নেই সমজগতের সবার পরিচিত আমার খুব কাছের একজন 😍আবিদ😍 …
প্রথমেই নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানাই তোকে, কেমন আছিস বল….ও ভুলেই গেছি. আমাদের এই সাতরঙা আড্ডাই তোকে স্বাগতম জানাচ্ছি, এবার বল দিন কাল কেমন যাচ্ছে….?
.
আবিদঃ প্রথমেই সাতরঙা পেইজকে অসংখ্য ধন্যবাদ আমাকে তাদের আড্ডায় আমন্ত্রণ জানানোর জন্য।আর তোকে ব্যক্তিগতভাবে অনেক ধন্যবাদ।
আমি আছি বরাবরের মতোই বিন্দাস।তোর কি খবর??
.
হাহাহাহা….চলছে আমারো সব মিলিয়ে খারাপ না….আশা করছি নতুন বছর ভালো কাটবে।
নতুন কিছু করার ইচ্ছে আছে, দেখা যাক কতটুকু সফল হয়। এনিওয়ে আবিদ আমাদের আড্ডার মূল পর্বে চলে যায়, আমি তোকে কিছু কোয়েশ্চান করব…আগেই বলে দিচ্ছি প্রশ্ন শোনে তোর মাথা ঘুরে যেতে পারে….হাহাহাহা
.
আবিদঃ হাহা হা 😂😂😂।তোর কাছে আসলে মাথা ঘুরবে সেটা আমি আগে থেকেই জানি।আমি মাথা ঘুরানোর জন্য প্রস্তুত….
.
হাহাহাহাহা….অনেক হয়েছে এবার কাজের কথায় আসি..তো যা বলছিলাম সিম্পল কিছু প্রশ্নপর্ব…. হ্যা তো আমার চলে আসি প্রশ্নপর্বে… এই সমজগতে তুই পরিচিত মুখ, তা এই সমজীবনটা নিয়ে তুই কতটুকু সন্তুষ্ট…. আদো সন্তোষ্ট কি..?
.
আবিদঃ সত্যি বলতে কি, এখানের অনেকেই নিজের এই সত্ত্বাকে ঘৃণা করে কিন্তু আমি বলব আমি এর ব্যতিক্রম।আমি আমার নিজের সত্ত্বাকে খুব ভালবাসি এবং এটা নিয়ে আমি সন্তুষ্ট।নিজেকে ঘৃণা করার মতো দুঃসাহস আমার নেই। 🙂
.
ভীষণ ভালো বলেছিস রে…সত্যি এখানে অনেকেই আছে এই বিষয়টা নিয়ে অনেক ডিপ্রেশনে ভোগে, তাদের বলব প্লিজ লাভ ইউরসেল্ফ, বিলিভ ইউরসেল্ফ। নিজেকে ভালোবাসুন।
ওকে কথা না বাড়িয়ে পরের প্রশ্নে চলে যাচ্ছি, অনেকেই সমকামী হওয়ার পিছনে অনেক কারণ ব্যাক্ত করে, তোর কিভাবে আগমন হলো এই জগতে, জন্মগত নাকি অন্যকিছু, ব্যাক্তিগত হলে বলা লাগবে না….
.
আবিদঃ আমি কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার মাধ্যমে এক জগতে আসি নি।বলা যায় জন্মগতভাবেই আমি সমলিঙ্গপ্রেমি।মূলয় বয়ঃসন্ধিকাল থেকেই আমার পুরুষের প্রতি আকর্ষণ জন্মাতে থাকে।
.
আসলে আমি মনে করি সমকামী হওয়াটা সম্পূর্ণ প্রকৃতগত…কোন অপ্রীতিকর বিষয় কখনোই কাম্য নয়…।
অনেক প্রশ্ন করা হচ্ছে তুই নিশ্চয় আমাকে গালমন্দ করছিস 🙄🙄🙄…
.
আবিদঃ না না মুটেও তা নয়।বরং আমার খুব মজা লাগছে।প্রত্যেকটা প্রশ্নের পর আমি আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছি পরের প্রশ্ন কি হবে।আসলে এই কথাগুলো তো আমরা কারো কাছে বলতে পারি না এখানে বলে অনেকটা স্বস্তি পাচ্ছি।।😌😌
.
সত্যি বলতে আমি নিজেও স্বস্তি পাচ্ছি এরকম একটা আয়োজন করতে পেরে…সবার মনের সুপ্তকথাগুলো বলার অন্যতম একটা স্থান আমাদের সাতরঙের “গল্প স্বল্প” আর আজ তোকে পেয়ে ভীষণ ভালো লাগছে, যাক অনেক কথা হলো… আচ্ছা এই লাইফটাকে তুই আর্শীবাদ স্বরূপ দেখিস নাকি অভিশাপ…অনেকেই কিন্তু এই জীবনটাকে নরকের মত মনে করে…তোর কি ধারনা…
.
আবিদঃ আমি এককথায় বলব আমার এই লাইফকে আমি আর্শীবাদ মনে করি আমার জীবনে।
ভেবে দেখ দুনিয়ার সব মানুষ কিন্তু আমাদের মতো না।আমরা গুটি কয়েক মানুষ-ই এমন।আমরা স্রষ্টার কাছে খুব স্পেশাপ তাই উনি আমাদের এই ভিন্নতা,বৈচিত্র্য দিয়েছেন।এইজন্য আমি স্রষ্টার কাছে চিরকৃতজ্ঞ
.
দূর্দান্ত একটা ম্যাসেজ দিলি সবার জন্য যারা নিজের লাইফটাকে নিয়ে অসুখী, নিজেকে অভিশপ্ত ভাবে,,আর আজ সত্যি তোর কথাগুলো হৃদয় ছোয়ে গেলো….
আচ্ছা এই সমজীবনটাকে নিয়ে কি ভাবছিস,, ভবিষ্যৎ এ কি করতে চাস…
.
আবিদঃ ব্যক্তিগত জীবনের জন্য বললে আমি এই সত্ত্বাটাকে সম্মান করে কোন একজন সমভাবাপন্ন ব্যক্তিকে নিয়ে জীবন কাটিয়ে দিব কিন্তু যদি তা সম্ভব না হয় তাহলে একা থাকব।নিজেকে অশ্রদ্ধা আমি কখনো করব না।

তাছাড়া সামাজিক ক্ষেত্রে এই বিষয় নিয়ে কাজ করার জন্য আমি এখনো তেমন কোনো অবস্থানে যেতে পারি নি।তবে ইচ্ছে আছে এই সত্ত্বাধারী মানুষদের জন্য ভবিষ্যতে কিছু করা। আর বর্তমানে আমার পরিচিতদের এই বিষয়টা সম্পর্কে এটা স্বচ্ছ ধারণা দেয়া চেষ্টা করছি যেনো তারা এলজিবিটি ফ্রেন্ডলি হয়।মূলত এই ছোট প্রয়াসটা বর্তমানে চালিয়ে যাচ্ছি।তোরা সার্পোট দিলে ভবিষ্যতে আরো ভাল কিছু করার ইচ্ছে পোষণ করি।
.
তোর প্র‍য়াসটা সত্যি খুব ভালো, আমি মনে করি প্রত্যেককেই এই প্রয়াসটা করা উচিত, আমাদের কাছের মানুষগুলোকে এলজিবিটি সম্পর্কে স্পষ্ট ধারনা দিতে হবে, তাদের বুঝাতে হবে সমমনাদের ঘৃনা নয় ভালোবাসা উচিত।
আচ্ছা এই যে তুই বললি একজন সমমনাকে নিয়ে সারাজীবন কাটিয়ে দিবি তা এরকম কারো দেখা মিলেছে কি…..?
.
আবিদঃ 😍😍😍😍😍
.
হাহাহাহাহ আচ্ছা বাদ দিলাম এই প্রশ্ন, এই সমজগতের সম্পর্ক নিয়ে তোর কি ধারনা,,,,?
মাঝে মধ্যে নিরাশ হয় খুব ঠুনকো কিছু নিয়েই সম্পর্কগুলো ভেঙে যায়, আবার নতুন সম্পর্ক গড়তেও বেশি সময় লাগে না, এই ভাঙা গড়ার সম্পর্ক নিয়ে তোর মতামত কি, কেন এরকম হয়,, আর এর প্রতিকার কি বলতে পারিস…..?
.
আবিদঃ আমার ব্যক্তিগতভাবে মনে হয় সম্পর্কে বিশ্বাস,শ্রদ্ধা আর সহনশীলতার অভাবেই সম্পর্কগুলো এমন ঠুনকো হয়ে থাকে।
ঠিক এইজন্য আমি আমাদের জেনারশন না বরং আমাদের পূর্ববর্তী জেনারেশনের ভালবাসাটা পছন্দ করি।
দুটি মাথা একসাথে থাকলে স্বাভাবিকভাবেই মতের পার্থক্য,পছন্দ-অপছন্দের মিল হবেই।এইসব সামান্য বিষয় নিয়ে রাগারাগি না করে একসাথে সহনশীল মনোভাব নিয়ে খোলামেলা কথা বলে নিলে আশা করা যায় এই সমস্যা প্রতিকার হবে সমকামি প্রেমিক যুগলদের।
.
আমার মনে হয় একজন আরেকজনের প্রতি শ্রদ্ধা ভালোবাসা বিশ্বাস থাকলে আর সামনে এগিয়ে যাওয়ার অদম্য ইচ্ছা থাকলে সম্পর্কে আর সমস্যা আসার কথা না৷ এটাই একমাত্র প্রতিকার আমার মনে হয়,,,,,,
আচ্ছা আবিদকে ভালোবাসে অনেকেই কিন্তু আবিদের কি পছন্দের কেউ আছে, এটা আমার নয় সকলে জিজ্ঞাসা তোর কাছে??
.
আবিদঃ এইখানের সবাই আমার আপনজন।সবাই আমার পছন্দের মানুষ।ছোট জীবনটায় আমি অপছন্দের তালিকা বানাতে চাই না
.
. ভীষণ ডিপ্লোম্যাটিক আন্সার, ওয়েল প্লেয়েড, হাহাহাহা।
আচ্ছা ফ্যামিলি আমাদের কাছে খুবই গুরত্বপূর্ণ, পরিবারের সবাই খুব প্রিয় যদি প্রশ্ন করি পরিবারের বাইরে এমন তিনজনের নাম বলতে যারা তোর খুব কাছের, ভালোবাসার??
.
আবিদঃ প্রথমেই আমি নিজেই নিজের কাছের মানুষ।কারণ আমার মনে হয় নিজেকে ভালো না বেসে অন্যকে ভালোবাসা যায় না আপন করা যায় না।
তারপর যাদের নাম আসে তারা হল তুই মানে মেঘ আর একজন মিরাজ
দুইজনই আমার জীবনে খুব গুরুত্বপূর্ণ আর স্পেশাল।
.
আমাকে যদি কখনো এই প্রশ্ন করা হয় আমিও হয়ত এটাই বলব, সবার আগে নিজেকে ভালোবাসা উচিত, তারপর অন্য কাউকে৷
আবিদ মানুষ হিসেবে কেমন, ১০ এ কত দিবি নিজেকে?
.
আবিদঃ মানুষ হিসেবে নিজেকে মূল্যায়ন করা হয়তো দুনিয়ার সবচেয়ে কঠিন কাজ।তবুই যে নিজেকে মূল্যায়ন করতে পারে তার থেকে বড় বিবেচক আর হয় না।
আমি মানুষ হিসেবে নিজেকে ৭/১০ দিব।কারণ আমার জীবনে অনেক অর্জন,মূল্যবোধ এখনো বাকি আছে।যদি সব অর্জন করতে পারি কখনো তবে নিজেকে ১০/১০ দিব
.
১০ এ ৭ ভালো তো, তোর আগামী জীবনের জন্য অনেক অনেক শুভকামনা অনেক সফল হ,
নিজের জীবনের সবচেয়ে হ্যাপি মোমেন্ট কোনটি যা তুই বার বার ফিরে পেতে চাস, আর কোন মোমেন্টগুলো তুই তোর লাইফ থেকে ইরেজ করতে চাস…?
.
আবিদঃ ছোটবেলায় এলাকার সব ছেলেপোলেরা মিলে একসাথে খেলা করতাম,সন্ধ্যার দিকে পা দিয়ে বালিতে ঘর বানিয়ে খেলা করেছি সেই সময়গুলো আমি বার বার ফিরে পেতে চাই।

আমার জীবনে এখনো তেমন কোনো কিছুই ঘটে নি যা আমি মুছতে চাই।
.
সত্যিরে কাশ আবার শৈশবটা ফিরে পেতাম কত না ভালো ছিলাম, ধুর কেনো যে বড় হলাম।
একদিনের জন্য বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট হয়ে গেলে কি কি করবি.?
.
আবিদঃ ১.সমকামিসহ সকল সংখ্যালঘু মানুষের অধিকারের স্বীকৃতি দিব।
২.দরিদ্র,অসহায়,দুঃখী মানুষের কষ্ট দূর করব।
৩.পশু-পাখির জীবন নিরাপদ রাখার জন্য কঠোর আইন করব।

অথবা একদিনে প্রচুর টাকা হাতিয়ে নিব।😜
তারপর একদিনের প্রসিডেন্টের ভ্যালু শেষ হয়ে গেলে ওই টাকা দিয়ে অসহায় মানুষ,প্রাণীর দুঃখ-কষ্ট দূর করব।
.
হাহাহাহাহ আমাকেও কিছু দান করিস,,,,, আমিও অনেক দুঃখী মানুষ।
এবার ধর অলৌকিক ক্ষমতার অধিকারী হয়ে গেলি, মানুষের মন পড়তে পারছিস, সবার প্রথম কার মাইন্ড রিড করতে চাইবি
.
আবিদঃ উচ্চতর গণিত আর ফিজিক্স টিচার্সের মন😑😑
.
রিয়েলি, হাহাহাহা, আচ্ছা অনেক প্রশ্ন হলো, অনেক আড্ডা হলো, অনেক বিরক্ত করা হলো, তা আমাদের গল্প-সল্প আয়োজন কেমন লাগলো তোর…?
.
আবিদঃ এককথায় বলতে গেলে তোদের এই আয়োজনটা অসম্ভব ভালো লেগেছে।মনের কথাগুলো বলার জন্য এই গল্প-সল্প একটা দারুণ আয়োজন।
অন্যদিকে তোর প্রশ্নগুলো কিন্তু চমৎকার ছিল আর উপস্থাপনা চমকপ্রদ।
এখানে মনের কথাগুলো বলে অনেক স্বস্তি পেলাম।গল্প-সল্প আয়োজন আর সাতরঙা পেইজের অন্য অনেক শুভ কামনা রইল।
.
থ্যাংকস আবিদ আমাদের আড্ডাই আসার জন্য। তোর সাথে যখনি কথা হয় খুব ভালো ফিল করি, মনে হয় আমার নিজের প্রতিচ্ছবি তুই। খুব ভালো কাটুক তোর নতুন বছর।
.
আবিদঃ অনেক ধন্যবাদ তোকে।আগামি বছর অনেক আনন্দে কাটুক তোর।আর সাতরঙা পেইজ ভবিষ্যতে এমন আরো আয়োজন করুক সেই প্রত্যাশা করি।
.
আজকের মত আমাদের গল্প-সল্প এখানেই শেষ, আবার আসবো আমি মেঘ নতুন কোন প্রিয়মুখ নিয়ে, ততোদিনের জন্য শুভ বিদায়, সবাই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন, সবাই কে নিয়ে নতুন বছর উদযাপন করুন৷ আর আমাদের আজকের আড্ডা কেমন লাগলো অবশ্যই মন্তব্য করে জানান।

আপনি যদি আমাদের সাতরঙা আড্ডায় যোগ দিতে চান তাহলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন৷

ধন্যবাদ সবাইকে এতক্ষন যাবত আমাকে সহ্য করার জন্য। নতুন বছরের শুভেচ্ছা সবাইকে।

লেখকঃরাত সিংহ মেঘ 

প্রকাশেঃ সাতরঙা গল্প

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.